E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Technomedia Limited
Mobile Version

কুষ্টিয়ায় মোটরসাইকেলে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কা, মা-মেয়ে নিহত

২০২২ জুন ১১ ১৩:০১:৪৪
কুষ্টিয়ায় মোটরসাইকেলে কাভার্ডভ্যানের ধাক্কা, মা-মেয়ে নিহত

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে একটি মোটরসাইকেলকে কাভার্ডভ্যান ধাক্কা দিলে এক গৃহবধূ ও তার মেয়ে নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় নিহত গৃহবধূর স্বামী আহত হয়েছেন।

শুক্রবার (১০ জুন) রাতে কুষ্টিয়া-রাজবাড়ি আঞ্চলিক মহাসড়কের কুমারখালীর নদন্দনালপুর ইউনিয়ন পরিষদ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- মা রিনা খাতুন (৩০) ও মেয়ে জয়া (১১)। আর রিনার স্বামী আশরাফুল ইসলাম জনি (৩৬) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

আশরাফুল ইসলাম জনি কুষ্টিয়া শহরের হউজিং সি ব্লকের আব্দুস সালামের ছেলে। তিনি পেশায় একজন মোটরগাড়ি মেকার। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, কাভার্ডভ্যানটি মোটরসাইকেলকে ওভারটেক করতে গিয়ে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, জনি তার স্ত্রী ও সন্তানকে নিয়ে মোটরসাইকেলে রাজবাড়ী জেলার পাংশার মাছপাড়া এলাকার শ্বশুরবাড়ি থেকে নিজ বাড়ির উদ্দেশে রওয়ানা হন। রাত আনুমানিক সাড়ে ৯টার দিকে তারা কুষ্টিয়া-রাজবাড়ি আঞ্চলিক মহাসড়কের কুমারখালীর নদন্দনালপুর ইউনিয়ন পরিষদ এলাকায় পৌঁছান। এসময় একটি কাভার্ডভ্যান ওভারটেক করতে গিয়ে মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দেয়। এতে ছিটকে পড়ে ঘটনাস্থলেই রিনা খাতুনের মৃত্যু হয়।

আরও জানা গেছে, এ ঘটনায় জনি ও তার সন্তান জয়া আহত হয়। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে পাঠায়। সেখানে রাত দেড়টার দিকে চিকিৎসাধীন জয়ার মৃত্যু হয়।

এ বিষয়ে আহত আশরাফুল ইসলাম জনি বলেন, রাতে শ্বশুরবাড়ি থেকে মোটরসাইকেলে করে আমি, দুই মেয়ে ও আমার স্ত্রী মিলে চারজন বাড়ি ফিরছিলাম। হঠাৎ একটি গাড়ি পেছন থেকে ধাক্কা দিলে আমরা সড়কে পড়ে যাই। এতে ঘটনাস্থলেই আমার স্ত্রী মারা যায়। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মেয়ে জয়াও মারা যায়।

কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালের আরএমও ডা. মো. আশরাফুল আলম সড়ক দুর্ঘটনায় মা-মেয়ের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, মায়ের মৃত্যুর প্রায় চার ঘণ্টা পরে রাত দেড়টার দিকে চিকিৎসাধীন জয়ার মৃত্যু হয়। তার বাবা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তার অবস্থা মোটামুটি ভালো।

চৌড়হাঁস হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইদ্রিস আলী বলেন, মোটরসাইকেলে চারজন ছিল। ঘটনাস্থলে স্ত্রী রিনা মারা যায়। পরে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মেয়ে জয়া মারা গেছে।

কুমারখালী থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, কাভার্ডভ্যানের সঙ্গে মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে এ দুর্ঘটনা ঘটে। মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে। কাভার্ডভ্যানটি টোলপ্লাজা এলাকা থেকে জব্দ করা হয়েছে।

(ওএস/এএস/জুন ১১, ২০২২)

পাঠকের মতামত:

০৯ ডিসেম্বর ২০২২

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test