E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Technomedia Limited
Mobile Version

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বগুড়ায় বাম গণতান্ত্রিক জোটের বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ 

২০২২ আগস্ট ০৮ ১৮:০৪:০৮
জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বগুড়ায় বাম গণতান্ত্রিক জোটের বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ 

এটিএম রাশেদুল ইসলাম, বগুড়া : জ্বালানি তেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বগুড়ায় বাম গণতান্ত্রিক জোটের বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। জ্বালানি তেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি 'গণবিরোধী ও স্বৈরাচারী সরকারের একতরফা সিদ্ধান্ত' প্রত্যাহারের দাবিতে-বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে সোমবার (৮ আগস্ট) সকাল সাড়ে এগারোটায় বগুড়া সাতমাথায় অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে মিছিল অনুষ্ঠিত হয় ।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বাম গণতান্ত্রিক জোটের জেলা নেতা বাসদ বগুড়া জেলা সদস্য সচিব কমরেড অ্যাড. দিলরুবা নূরী। আরো উপস্থিত ছিলেন বাম গণতান্ত্রিক জোটের বগুড়া জেলা সমন্বয়ক বাসদ বগুড়া জেলা আহ্বায়ক কমরেড অ্যাড.সাইফুল ইসলাম পল্টু। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সিপিবি বগুড়া জেলা সভাপতি কমরেড জিন্নাতুল ইসলাম জিন্নাহ্, সাধারণ সম্পাদক কমরেড আমিনুল ফরিদ, বাসদ বগুড়া জেলার সাবেক সদস্য সচিব কমরেড সাইফুজ্জামান টুটুল, বাসদ বগুড়া সদর উপজেলা সভাপতি কমরেড মাসুদ পারভেজ, সমাবেশ সঞ্চালনা করেন সিপিবি নেতা সুলতান আহম্মেদ রবিন।

সমাবেশে কমরেড জিন্নাতুল ইসলাম জিন্নাহ বলেন, বিশ্ববাজারে যখন তেলের দাম নিম্নমুখী সে সময়ে সরকারের এই সিদ্ধান্ত জনগণের উপর মূল্যবৃদ্ধির বোঝা আরও বাড়াবে। শিল্প, কৃষি, পরিবহন থেকে শুরু করে সকল ক্ষেত্রেই জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রভাব পড়বে। এতে জনজীবনে চরম দুর্দশা নেমে আসবে। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, গত ছয় মাসে বিপিসি জ্বালানি তেল বিক্রি করে ৮ হাজার কোটি টাকা লোকসান করেছে। কিন্তু বিগত সময়ে বিশ্ববাজারে যখন তেলের দাম কম ছিল সে সময়ে তেল বিক্রি করে সরকার ৪৭ হাজার কোটি টাকা মুনাফা করেছিল। তা দিয়েই এই ঘাটতি পূরণ করা যেত। অথচ সরকার সে পথে না হেঁটে জনগণের উপর মূল্যবৃদ্ধির বোঝা চাঁপিয়ে দিল।

কমরেড অ্যাড. দিলরুবা নূরী বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে দামের সামঞ্জস্য রাখার কথা বলে ডিজেল, কেরোসিন, অকটেন ও পেট্রল-এর দাম বাড়ানো হলো অথচ আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমলে তো আমাদের দেশে দাম কমে না। এই সরকার গত ২০২১ সালের নভেম্বর মাসে ডিজেল লিটার প্রতি ১৫ টাকা, গত জুন মাসে গ্যাসের দাম এবং এ মাসে ইউরিয়া সারের কেজি প্রতি ৬ টাকা বৃদ্ধি করেছে। এইবার তারা বিইআরসির গণশুনানী না করিয়ে ডিজেল, কেরোসিন, অকটেন ও পেট্রল-এর দাম বাড়ালো। সরকারের এই সিদ্ধান্ত জনজীবনে ব্যাপক প্রভাব ফেলেছে। ইতিমধ্যে বাজারে সকল জিনিস-পত্রের দাম বেড়ে গেছে, বাস ভাড়া বেড়ে গেছে কিন্তু মানুষের আয় বাড়েনি। এই পরিস্থিতিতে মানুষের জীবন মান নিম্নগামী হতে বাধ্য। তাই জনগণকে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারের এই গণবিরোধী সিদ্ধান্ত প্রতিহত করতে হবে।

সমাবেশে অন্যন্য নেতৃবৃন্দ বলেন: গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম ইতিমধ্যে পর্যায়ক্রমে বাড়ানো হয়েছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দামও উচ্চপর্যায়ে আছে। এমন পরিস্থিতিতে ডিজেল, কেরোসিন, অকটেন ও পেট্রল-এর দাম বৃদ্ধি নিম্নআয়ের মানুষের জীবন-যাপন দুর্বিষহ হয়ে পড়েছে। স্বাভাবিকভাবে পরিবহনসহ সকল ক্ষেত্রে এই দাম বৃদ্ধির প্রভাব পড়েছে। তাই সরকারকে এই অগণতান্ত্রিক জনবিরোধী সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করতে হবে। অন্যথায় জনগণ ঐক্যবদ্ধভাবে গণ আন্দোলনের মাধ্যমে তাদের এই অগণতান্ত্রিক-জনবিরোধী সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করতে বাধ্য করবে।

(এআর/এসপি/আগস্ট ০৮, ২০২২)

পাঠকের মতামত:

০১ অক্টোবর ২০২২

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test