E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Technomedia Limited
Mobile Version

মহম্মদপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় কৃষকের মৃত্যু

২০২২ সেপ্টেম্বর ০৫ ১৯:১০:৩১
মহম্মদপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় কৃষকের মৃত্যু

মাগুরা প্রতিনিধি : মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার বিনোদপুর ইউনিয়নের উরুরা গ্রামে ইউপি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বি দুই মেম্বার প্রার্থীর এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় সোমবার ভোরে আতর আলী লস্কর (৬০) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। তিনি উরুরা গ্রামের মৃত: রজব আলী লস্করের ছেলে। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। নতুন করে সংঘর্ষ এড়াতে এলাকার বিভিন্নস্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। 

লুটপাটের আশঙ্কায় অধিকাংশ পরিবার তাদের গৃহস্থালির মালামাল অন্যত্র সরিয়ে নিচ্ছেন। পুলিশের হাতে আটকের ভয়ে এক পক্ষের লোকজন গ্রাম ছেড়ে পালিয়েছেন। এ ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে পুলিশ সাইফুল মোল্যা ও আল আমিন নামের দুই ব্যক্তিকে আটক করেছেন। সোমবার সকালে মাগুরার সহকারি পুলিশ সুপার কলিমুল্লাহ্ (ক্রাইম ও অপারেশন) এবং এডিশনাল এসপি নাজিম উদ্দীন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

সুত্র জানায়, গত বছরের নভেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে একই এলাকা থেকে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য মনির মোল্যা এবং বর্তমান মহম্মদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মনিরুল ইসলাম মেম্বার পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ওই নির্বাচনে মনিরুল ইসলামের কাছে মনির মোল্যা পরাজিত হন। সেই থেকে উভয় প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকরা বিভক্ত হয়ে পড়েন এবং এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে মাঝে মধ্যেই উভয় নেতার সমর্থকরা মুখোমুখি হয়।

পূর্ববিরোধের জের ধরে গত শুক্রবার বিকেলে স্থানীয় বেথুলিয়া বাজারের চায়ের দোকানে মনির মোল্যার ভাতিজা রাজা মিয়ার সাথে বর্তমান ইউপি সদস্য মনিরুল মিয়া সমর্থিত লাল মিয়ার ছেলে রেজাউল এবং রকিবুলের কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ খবর এলকায় ছড়িয়ে পড়লে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। থানা পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দিতে সক্ষম হয়। রোববার দুপুরে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া এবং বসতবাড়িতে ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। ফের পুলিশ সেখানে গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়। এদিন বিকালে কৃষক আতর লস্কর পার্শ্ববর্তী কানুটিয়া হাটে আসেন নিত্য প্রয়োজনীয় বাজার করতে।

এ সময় মনিরুল মেম্বরের লোকজন দেশীও অস্ত্রদিয়ে তার শরীরের বিভিন্নস্থানে আঘাত করলে তিনি গুরুতর আহত হয়ে রাস্তায় লুটে পড়েন। কোনোকিছু বুঝে ওঠার আগেই হামলাকারিরা দ্রুত সেখান থেকে সটকে পড়েন। পরে হাটের লোকজন তাকে উদ্ধার করে মহম্মদপুর উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে আনলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর অসস্থার অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত ঢাকা নেওয়ার পরামর্শ দেন। রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর সোমবার ভোরে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। নতুন করে সংঘর্ষ এড়াতে বিভিন্নস্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

নিহতের বড়ভাই বিলায়েত লস্কর বলেন, ‘আমার সহজ সরল ভাইটাকে ওরা নির্মমভাবে হত্যা করেছে। আমি এই ঘটনার সঠিক বিচার চাই।’

মহম্মদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) অসিত কুমার রায় বলেন, ‘হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাইফুল ও আল আমিন নামের দুই ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন আছে।’

(ডিসি/এসপি/সেপ্টেম্বর ০৫, ২০২২)

পাঠকের মতামত:

০৯ ডিসেম্বর ২০২২

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test