E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Technomedia Limited
Mobile Version

সুবর্ণচরে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ, বিয়ের চাপ দিলে ৩ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবি

২০২২ অক্টোবর ০১ ১৫:৫৬:২৩
সুবর্ণচরে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ, বিয়ের চাপ দিলে ৩ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবি

মোঃ ইমাম উদ্দিন সুমন, নোয়াখালী : নোয়াখালী সুবর্ণচরে বিয়ের প্রলোভনে এক গৃহবধূকে বিশ দিন ধরে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে কারও কাছে বিচার চাইলে অভিযুক্ত ব্যক্তি তাকে গুম করার হুমকি দেয় বলে জানান ওই নারী। তবে বিচারের আশায় জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয়দের দ্বারে দ্বারে ঘুরলেও বিচার পাননি তিনি।

অভিযোগে জানা যায়, ২০২১ সালের অক্টোবরের ৬ তারিখে চট্টগ্রামের গিয়াস উদ্দিনের সাথে আনুষ্ঠানিক ভাবে বিয়ে হয় নোয়াখালী সুবর্ণচর উপজেলার ৫নং চর ওয়াপদা ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের চর কাজীমোখলেছ গ্রামের মৃত জাহাঙ্গীর আলমের মেয়ে এর।

সুখেই কাটছিলো তাদের দাম্পত্য জীবন, তাদের সুখের সংসারে বাঁধা হয়ে দাঁড়ালো একই গ্রামের প্রবাসী জায়েদল হকের ছেলে মামুন(২১)

ভুক্তভোগী নারী জানান, মামুন আমাকে প্রায় সময় ডিস্টার্ব করতো এবং আমার স্বামীকে বিভিন্ন খারাপ কথা বলতো এবং হুমকি ধামকি দিতো, এপর্যায় আমার স্বামী আমাকে রেখে চলে যায়। এরপর থেকে মামুন আমার পিছু ছাড়ে না, আমাকে বিয়ের প্রলোভন দেয়, গত আগষ্ট মাসের ২৫ তারিখে আমাকে কোর্টে বিয়ে করবে বলে বাড়ি থেকে বের করে চট্টগ্রাম নিয়ে যায়, চট্টগ্রাম অক্সিজেন এলাকায় একটি রুম ভাড়া করে বিশদিন ধরে আমাকে ধর্ষণ করতে থাকে,আমি বিয়ের জন্য চাপ দিলে আমাকে রুমে একা রেখে সে এলাকায় চলে আসে, আমি কোন উপায়ান্তর না পেয়ে আমার মাকে ফোন করলে আমার মা গিয়ে আমাকে নিয়ে আসে, এলাকায় এসে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তি ও জনপ্রতিনিধিকে বিষয়টি জানায়, তারা মামুনকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে সে তাদের সাথে ধরা দেয় না। আমি মামুনের নামে মামলা দায়ের করবো।

ভুক্তভোগী নারীর মা সুফিয়া আক্তার জানান, মামুন আমার মেয়ের সর্বনাশ করছে, এঘটনার বিচার চেয়ে আমি সবার দ্বারে দ্বারে ঘুরছি, কেউ আমাকে পাত্তা দেয় না, আমি মামুনের বাবা জায়েদল হককে টেলিফোনে এঘটনা জানালে সে আমার কাছে ৩ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করে, আমি গরীব মানুষ, আমার স্বামী নেই, ছেলে নেই, ৩ লক্ষ টাকা যৌতুক দিতে পারবো না জানালে সে বিভিন্ন হুমকি ধামকি দেয়, আমি মামুনের উপযুক্ত বিচার চাই।

স্থানীয় মেম্বার জাকির হোসেন জানান, প্রবাসী জায়েদল হকের ছেলে মামুন ওই মেয়েকে বিয়ে করবে বলে চট্টগ্রাম নিয়ে বিশদিন রেখেছে, এঘটনা আমি রাশেদার মা সুফিয়া আক্তার ও এলাকার কিছু লোকজনের কাছ থেকে শুনেছি, শুনার পর মামুনকে বার বার কল দিয়েও তার ফোন বন্ধ পাই, মামুনের বাবার সাথে টেলিফোনে যোগাযোগ করলে তিনি এই মেয়েকে তার ছেলের বউ হিসেবে ঘরে তুলবে না বলে জানিয়েছেন।

স্থানীয় মোঃ সাইফুল ইসলাম জানান, ওই মেয়ের সাথে মামুনের প্রেমের সম্পর্ক ছিলো, মামুন তাকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে চট্টগ্রাম নিয়ে বিশদিন রেখেছে, এখন বিয়ের জন্য চাপ দিলে যৌতুক দাবী করে, মেয়ের মা অসহায় মহিলা, কোথেকে যৌতুক দিবে, আমরা এলাকাবাসী এঘটনার উপযুক্ত বিচার চাই।

ধর্ষণের বিষয়ে মামুন ও তার মাকে বার বার কল দিয়ে ফোন বন্ধ পেয়ে মামুনের দাদীকে জিজ্ঞেস করলে তিনি ঘটনা স্বীকার করে জানান, আমার নাতি মামুন বিশদিন সুফিয়ার মেয়েকে নিয়ে চট্টগ্রাম ছিলো, এই বিষয়ে আমি সুফিয়ার বাড়িতে গেলে ঐসময় বিদেশ থেকে আমার ছেলে জায়েদল হক ফোন দিয়ে সুফিয়ার সাথে কথা বলে, দুষ্টুমী করে সুফিয়ার কাছে ৩ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবী করছে আমার ছেলে।

(আইইউএস/এএস/অক্টোবর ০১, ২০২২)

পাঠকের মতামত:

০৯ ডিসেম্বর ২০২২

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test