E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Walton New
Mobile Version

শরীরের দেয়া হয় সিগারেটের ছ্যাকা

চোর আখ্যা দিয়ে ব্যবসায়ীকে ছাত্রলীগ নেতার রাতভর নির্যাতন

২০২৩ মে ২৫ ১৯:৪৯:৪৩
চোর আখ্যা দিয়ে ব্যবসায়ীকে ছাত্রলীগ নেতার রাতভর নির্যাতন

সরদার শুকুর আহমেদ, বাগেরহাট : বাগেরহাটে চোর আখ্যাদিয়ে ফকির রনি (৪৫) নামের এক পোল্টি ফিড ব্যবসায়ীকে সিগারেটের ছ্যাকাসহ রাতভর আটকে রেখে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে ষাটগম্বুজ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক মো. আজিজুল ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে।

গত মঙ্গলবার দিবাগত গভীর রাতে পাটরপাড়া বারুইডাংঙ্গা গ্রামে ক্লাব ঘরে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ভুক্তোভুগি পোল্টি ফিড ব্যবসায়ীকে ফকির রনি বাগেরহাটের পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের পর বিষয়টি বৃহস্পতিবার প্রকাশ পেয়েছে। পুলিশ বলছে বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যাবস্থা নেয়া হবে। নির্যাতনের শিকার ফকির রনি বাগেরহাট সদর উপজেলার সুন্দরঘোনা গ্রামের শামছু ফকিরের ছেলে।

নির্যাতনের স্বীকার পোল্টি ফিড ব্যবসায়ীকে ব্যবসায়ী ফকির রনি জানান, ২৩ মে আমি আমার পিকআপ চালিয়ে সদরের ষ্টগুম্বজ ইউনিয়নের বারুইডাঙ্গা এলাকায় শ্বশুর বাড়ি যাই। রাত ২টার দিকে রাস্তার পাশে পিকআপ রেখে শ্বশুরবাড়ীতে অবস্থান করছিলাম। এরমধ্যে রাত ৩টার সময় অপরিচিত একটি নাম্বার থেকে ফোন দিয়ে আমাকে জানানো হয় আমার পিকআপের (মিনি ট্রাক) দরজা খোলা। মুঠোফোনে খবর পেয়ে দ্রুত আমি রাস্তায় যাই। সেখানে গিয়ে দেখি আমার গাড়ীর দরজা খোলা, গাড়ীর সামনের লাইট ভাংচুর করা, ড্যাসবক্স ভাঙ্গা এবং ছ ষাটগম্বুজ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক মো. আজিজুলের হাতে আমার গাড়ীর কাগজপত্র। আমাকে দেখামাত্র আজিজুল আমাকে বলে তুই আমাদের দেখে দৌড় দিলি কেন, গাড়ীতে গরু এনেছিস তা কোথায় গেল ? আমি বলি গাড়ীতে কোন গরু আনা হয়নি। আমি গাড়ী রেখে শ্বশুরবাড়ীতে রয়েছি। তোমাদের দেখে দৌড় দেব কেন। একথা বলার সাথে সাথেই আজিজুল ও তার সাথে থাকা লোকজন আমাকে মারধর শুরু করে। থানায় নিয়ে যাওয়ার কথা বলে টানা হেচড়া করে গাড়ীতে উঠায় এবং পশ্চিমডাঙ্গা ক্লাবঘরে নিয়ে শারীরিক নির্যাতন করে। আমাকে হাতুরী দিয়ে পিটিয়েছে, গায়ে জলন্ত সিগারেট ছ্যাকা দিয়েছে। এতবেশি মেরেছে, মনে হয়েছে যেন এখনই মারা যাব। পরবর্তীতে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. মোজাম ঘটনাস্থলে আসলে ছাত্রলীগ নেতা আমাকে ছেড়ে দেয়। ওরা আমার পকেটে থাকা নগদ টাকাও নিয়েছে। এসব কথা কাউকে বললে আরও বেশি অত্যাচার করা হবে বলেও হুমকি দিয়েছেন তারা। অন্যায়ভাবে আমাকে যারা নির্যাতন করেছে তাদের বিচার চাই।

ষাটগম্বুজ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক মো. আজিজুল জানান, চোর সন্দেহে ফকির রনিকে ধরা হয়। তাকে সিগারেটের ছ্যাকা দেয়া হয়নি, দুটো চর-থাপ্পর মারা হয়েছে। পরবর্তীতে ইউপি সদস্য মো. মোজাম ঘটনাস্থলে এসে ফকির রনি চোর নয় বলে জানালে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

বাগেরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম আজিজুল ইসলাম জানান, এক পোল্টি ফিড ব্যবসায়ীকে আটকে রেখে মারপিটের একটি ঘটনা শুনেছি। ওই ব্যবসায়ী ষাটগম্বুজ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক মো. আজিজুল ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে লিখিত একটি অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগটি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

(এস/এসপি/মে ২৫, ২০২৩)

পাঠকের মতামত:

২২ জুন ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test