E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Technomedia Limited
Mobile Version

হাবড়া নদীর উপর ব্রীজ নির্মাণে অনিয়মের প্রতিবাদ ও কাঠের ব্রীজ অপসারণের দাবিতে সমাবেশ

২০২৪ মার্চ ০২ ১৭:৪৩:২৮
হাবড়া নদীর উপর ব্রীজ নির্মাণে অনিয়মের প্রতিবাদ ও কাঠের ব্রীজ অপসারণের দাবিতে সমাবেশ

রঘুনাথ খাঁ, সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার উজিরপুর বাজারে হাবড়া নদীর উপর নতুন ব্রীজ নির্মাণে অনিয়মের প্রতিবাদ ও টিআরবি ভাটা কর্তৃপক্ষের নির্মিত কাঠের ব্রীজ অপসারনের দাবিতে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ শনিবার সকাল ১১টায় কালিগঞ্জের উজিরপুর ব্রীজের দক্ষিণ পাশে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

অ্যাড. সত্যরঞ্জন মন্ডলের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য দেন কালিগঞ্জ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজমুল হক, বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির সাতক্ষীরা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. ফাহিদুল হক কিসলু, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল বাসদের জেলা শাখার সমন্বায়ক কলেজ শিক্ষক নিত্যানন্দ সরকার, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক ইদ্রিস আলী, সাংবাদিক রঘুনাথ খাঁ, চম্পাফুল ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, ২০২৩ সালের ৬ জুন থেকে ১০ কোটি টাকা ব্যয়ে হাবড়া নদীর উপর উজিরপুর ব্রীজটি নির্মাণ কাজ শুরু করে ওই বছরের ৫ ডিসেম্বরের মধ্যে কাজ শেষ করার কথা ছিল ঠিকাদারের। কিন্তু তিনি তা না করে এক মাস আগে এ কাজ শুরু করেছেন। পুরাতন ব্রীজটি কয়েকদিন আগে ভাঙা শুরু হয়েছে। সাধারণ মানুষ ও ছোট খাটো যানবাহন চলাচলের জন্য ওই ব্রীজের পাশ দিয়ে সিডিউলে উল্লেখিত ১২ ফুটের পরিবর্তে একটি সাত ফুটের কাঠের ব্রীজ নির্মাণ করা হয়েছে। ফলে সরু ব্রীজ দিয়ে চলাচল করতে যেয়ে মানুষ, যানবাহনের সমস্যা হচ্ছে। সোমবার ও শুক্রবার হাটবারে জনদুর্ভোগ বাড়ছে। এ ছাড়া ধুলা প্রতিরোধে পানি দেওয়ার ব্যবস্থা নেই। নেই ট্রাফিক ও শ্রমিকদের শৌচাগারের ব্যবস্থা । সব মিলিয়ে ব্রীজ নির্মাণে চরম অনিয়ম দেখা দিয়েছে। ব্রীজের উত্তর পাশে করা হয়নি রাস্তা। এ অবস্থা চলতে থাকলে মানুষের দুর্ভোগ বাড়বে।

বক্তারা আরো বলেন, এক কিলোমিটারের মধ্যে জনবসতি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল ও ইউনিয়ন ভূমি অফিস থাকার পরও নীতিমালা উপেক্ষা করে ঘুষুড়ি গ্রামে টিআরবি ইটভাটা নির্মাণ করা হয়েছে। সেখানে কয়লার পাশাপাশি কাঠ ও টায়ারের গুড়াে ব্যবহার করে ইট পোড়ানো হচ্ছে ফলে নষ্ট হচ্ছে পরিবেশ। এরপরও ওই ভাটার মাটি ও ইট বহনের সুবিধার্থে উজিরপুর ব্রীজের পূর্বে ২০০ গজ দূরে টিআরবি ভাটা কর্তৃপক্ষ কোন প্রকার অনুমতি ছাড়াই হাবড়া নদীর উপর কাঠের ব্রীজ নির্মাণ করে জোয়ার ভাটায় প্রতিরোধ সৃষ্টি করায় ওই স্থান পলিমাটি জমে নদী ভরাট হতে চলেছে। নদী ধ্বংসকারি ওই কাঠের ব্রীজ অবিলম্বে অপসারণ করতে হবে।

উল্লেখ্য, নীতিমালা উপেক্ষা করে সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার ঘুষুড়ি গ্রামে তানজিন এন্টারপ্রাইজ (টিআরবি ভাটা) নামের ইটভাটা নির্মাণ করা হয়েছে। যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই ওই ভাটার ইট ও মালামাল বহনের সুবিধার্থে উজিরপুর শ্মশানঘাটের পাশে হাবড়া নদীর উপরে গত ১০ ফেব্রুয়ারি আড়াআড়িভাবে কাঠের ব্রীজ বানানো হয়েছে। ফলে ওই বাঁধের স্থানে পলিমাটি জমে জোয়ারভাটা বন্ধ হয়ে যাওয়ার আশাঙ্কা দেখা দিয়েছে।

(আরকে/এসপি/মার্চ ০২, ২০২৪)

পাঠকের মতামত:

২৪ এপ্রিল ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test