E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Walton New
Mobile Version

মুরগির খামারের দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ গ্রামবাসী, ডিসির কাছে অভিযোগ

২০২৪ এপ্রিল ০৮ ১৯:৪০:৩৯
মুরগির খামারের দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ গ্রামবাসী, ডিসির কাছে অভিযোগ

বিশেষ প্রতিনিধি : পরিবেশ নীতিমালা উপেক্ষা করে এলাকায় পোল্ট্রি খামার  স্থাপন এবং বিষ্ঠার তীব্র দুর্গন্ধে পরিবেশ দুষণের অভিযোগে ৫ এপ্রিল রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগীরা। সেই অভিযোগের অনুলিপি দিয়েছেন বরাট ইউপি চেয়ারম্যান ও রাজবাড়ী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার কাছে।

অভিযোগ উঠেছে; পরিবেশ নীতিমালা উপেক্ষা করে গ্রামের ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় খামারটি স্থাপন করেছেন মোঃ আবু বক্কার। মুরগির বিষ্ঠার কারণে এলাকার পরিবেশ দূষিত হচ্ছে। বিষ্ঠার দুর্গন্ধে খামারের চারদিকে মানুষের বসবাস করা দায় হয়ে পড়েছে। অথচ নীতিমালা অনুযায়ী, একটি মুরগির খামার স্থাপনের জন্য পরিবেশ অধিদপ্তরের অনুমতি ও প্রাণিসম্পদ কার্যালয় থেকে রেজিস্ট্রেশনভুক্ত হতে হবে। ঘনবসতিপূর্ণ এলাকা এবং জনগণের ক্ষতি হয় এমন স্থানে খামার স্থাপন করা যাবে না।

তাদের অভিযোগ, পরিবেশ নীতিমালা উপেক্ষা করে- রাজবাড়ী জেলা সদরের বরাট ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডস্থ পূর্ব ভবদিয়া গ্রামের ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় মুরগির খামার স্থাপন করেছেন মোঃ আবু বক্কার।

উক্ত খামারের মুরগীর বিষ্ঠার মারাত্বক গন্ধ ও মশা মাছির কারনে আমাদের পরিবার পরিজন সন্তানাদি স্বাস্থ্য ঝুকির মধ্যে রয়েছে। এ সমস্যার কথা খামারিকে জানাতে গেলে সে খারাপ আচরন করেন এবং ভবিষ্যতে কেউ যেন অভিযোগ করার সাহস না করে, সে কারনে একজন কে মারধরও করে। এমতবস্থায় পরিবেশ ও সাস্থ্য রক্ষার্থে উক্ত মুরগীর খামারটি আবাসিক স্থল হতে অন্যত্র স্থানান্তরের জন্য তদন্ত করব আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের প্রতি দাবী জানান এলাকার ভুক্তভোগীরা।

এ ব্যাপারে, রবিবার (৭ এপ্রিল) পূর্ব ভবদিয়া গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, খামারটির চারপাশে বসতবাড়ি এবং খামার থেকে তীব্র দুর্গন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। এ সময় আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে এ প্রতিবেদককে জানান, মুরগির খামারের পাশে আমাদের বসবাস করা কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে।

(একে/এএস/এপ্রিল ০৮, ২০২৪)

পাঠকের মতামত:

২৫ জুন ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test