E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Walton New
Mobile Version

দেখার অপেক্ষায় উপজেলাবাসী

কে হচ্ছেন ভৈরব উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান?

২০২৪ জুন ০৩ ১৮:৪১:০১
কে হচ্ছেন ভৈরব উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান?

সোহেল সাশ্রু, কিশোরগঞ্জ : আগামী ৫ জুন ভৈরব উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগে যেন সেই পুরনো দ্বন্দ্বের পূর্বাভাস পাওয়া যাচ্ছে। চেয়ারম্যান প্রার্থীতা নিয়ে দলটি দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েছে। দলীয় নেতাকর্মীরা নির্বাচনী মাঠে তাদের পছন্দের প্রার্থী নিয়ে চষে বেড়াচ্ছেন। এবার ভৈরবে চেয়ারম্যান পদে লড়বেন ৪ জন প্রার্থী। এদের মধ্যে ৩ জন আওয়ামী পরিবারের, আর একজন বিএনপি পরিবারের। যদিও তাকে সম্প্রতি দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

আওয়ামী প্রার্থীদের মধ্যে বর্তমান উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সেন্টু ঘোড়া প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এদিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবুল মনসুরের প্রতীক কাপ পিরিচ। সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ড. মোশতাক আহমেদ বুলবুলের প্রতীক কই মাছ। আর উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক অলিউল ইসলাম অলি পেয়েছিলেন আনারস প্রতীক। তবে অলিউল ইসলাম অলি ৩১ মে শুক্রবার রাতে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে তিনি নির্বাচনী প্রচারণা থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন। পরদিন ১ জুন শনিবার কালিকাপ্রসাদ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম সেন্টু’র ঘোড়া মার্কা সমর্থনে এক পথসভায় অলিউল ইসলাম অলি ঘোড়া মার্কাকে সমর্থন করে বক্তব্য দেন। এছাড়া যুবদল থেকে বহিষ্কৃত আল মামুনের প্রতীক মোটরসাইকেল।

ভোটের আগে আওয়ামী লীগে দলীয় নেতাকর্মীদের বিভক্তি যেন দলকে আরও জটিল অবস্থায় ধাবিত করছে। অতীতে যেমন পাল্টাপাল্টি প্রার্থিতা ছিল, এবারো যেন সেই ধারাবাহিকতারই পুনরাবৃত্তি ঘটেছে। উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সেন্টুকে সমর্থন জানিয়ে মাঠে নেমেছেন, সাবেক প্রয়াত রাষ্ট্রপতি আলহাজ্ব মো. জিল্লুর রহমান এর এপিএস অধ্যাপক লুৎফুর রহমান ফুলু, উপজেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান জাকির হোসেন কাজল, সহ-সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা তালাওয়াত হোসেন বাবলা, সহ-সভাপতি অহিদুল্লাহ, সহ-সভাপতি সেলিম খান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমান, পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি এসএম বাকী বিল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক আতিক আহমেদ সৌরভ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শেফায়েত উল্লাহ ও খলিলুর রহমান। নেমেছেন উপজেলা ও পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ মহিলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ। যুবলীগেরও একটি বড় অংশ তার পক্ষে রয়েছে। এদিকে পৌরসভার ১৬ জন কাউন্সিলরের মধ্যে ১০ জন কাউন্সিলরও সমর্থন জানিয়েছেন। জাহাঙ্গীর আলম সেন্টু ছাত্রলীগ, যুবলীগ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগে দীর্ঘদিন আহবায়ক ছিলেন। বর্তমানে তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন।

এদিকে আবুল মনসুরের পক্ষে রয়েছেন পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব মো. ইফতেখার হোসেন বেনু, জেলা পরিষদের সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা মির্জা সোলায়মান।

৪ চেয়ারম্যান প্রার্থীই নির্বাচনী প্রচার জোরদার করার পাশাপাশি নিজস্ব কৌশল প্রয়োগ করে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছেন। ভোটাররা যোগ্য প্রার্থী দেখে ভোট দেবেন বলে জানান দিচ্ছেন। ভোটারদের অনেকেই বলছেন, কে কোন দলের প্রার্থী সেটা বিবেচনায় নিতে চান না। তারা ভোট দেবেন প্রার্থীর ব্যক্তিগত ইমেজ, সততা ও যোগ্যতা দেখে।

শেষ পর্যন্ত ফলাফল কি হয়, দেখার জন্য উপজেলাবাসীর চোখ এখন ৫ জুন নির্বাচনের দিকে। তিন ক্যাটাগরির প্রার্থীরাই কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকা চষে বেড়াচ্ছেন।

সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন যেমন ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করছে, প্রশাসনও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে যাবতীয় প্রস্তুতি নিয়েছে। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশন, আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও প্রশাসনের লোকজন নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সুষ্ঠু ভোট হলে ৪ চেয়ারম্যান প্রার্থীই বিজয়ের বিষয়ে আশা প্রকাশ করছেন। তারা সবাই বিজয়ী হলে ভৈরবকে একটি আধুনিক উন্নত উপজেলা হিসেবে গড়ে তোলার ব্যাপারে প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন।

এদিকে ভাইস-চেয়ারম্যান পদে জিয়াউর রহমান অরুন (উড়োজাহাজ), মোশারফ হোসেন (মাইক), আনোয়ার পারভেজ (চশমা), মুক্তার মিয়া (তালা), মাহাবুর রহমান (টিয়া পাখি), নুরুল ইসলাম (টিউবওয়েল) ও মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে মনোয়ারা বেগম (হাঁস), সাবিহা মাহাবুব প্রভা (কলস), সানজিদা ইয়াসমিন (ফুটবল) নিয়ে নির্বাচন করবেন।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, ভৈরব উপজেলায় মোট ভোটার ২ লক্ষ ৪৩ হাজার ৬৪২ জন। তাদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লক্ষ ২৭ হাজার ২০২ জন, মহিলা ১ লক্ষ ১৬ হাজার ৪৩৯ জন ও হিজড়া ১ জন। তারা ভৈরবের ৯২টি কেন্দ্রের ৬০১টি ভোট কক্ষে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবে। মোট কেন্দ্রের পৌরসভায় রয়েছে ৩৪টি কেন্দ্র ও ৭টি ইউনিয়নে ৫৮টি কেন্দ্র।

অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন পরিচালনার ক্ষেত্রে সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে বলে জানান ভৈরব উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাকিলা বিনতে মতিন।

(এসএস/এসপি/জুন ০৩, ২০২৪)

পাঠকের মতামত:

১৮ জুলাই ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test