E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Walton New
Mobile Version

কালিগঞ্জে মন্দিরে প্রসাদ খেয়ে এক শিশুর মৃত্যু, অসুস্থ শতাধিক

২০২৪ জুন ২৪ ১৮:২৫:৩৪
কালিগঞ্জে মন্দিরে প্রসাদ খেয়ে এক শিশুর মৃত্যু, অসুস্থ শতাধিক

রঘুনাথ খাঁ, সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে বাসন্তী পূজা মন্দিরে প্রসাদ (খিচুড়ি) খেয়ে কাব্য দত্ত নামের এক শিশু মারা গেছে। এছাড়া অসুস্থ হয়েছেন শতাধিক ব্যক্তি। আজ সোমবার সকালে গুরুতর অসুস্থ শিশুটিকে সাতক্ষীরা শিশু হাসপাতাল থেকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে ডুমুরিয়া এলাকায় সে মারা যায়।

কাব্য দত্ত (৫) খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার শৈলগাতী গ্রামের উত্তম দত্তের ছেলে । মা তিথি দত্তকে সাথে নিয়ে সে তার নানা অশোক দত্তের বাড়িতে বেড়াতে এসে পূজায় অংশ নেয়। তার মরদেহ গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

অসুস্থরা হলেন, কাব্য দত্তের মা তিথী দত্ত (২৫), বিষ্ণুপুর বানিয়াজাংগাল গ্রামের দিপু সেন (৩২), সুব্রত দত্ত (৩৪) পরিমল মন্ডল (৪২),তপন মন্ডল(৩৮), রামপ্রসাদ মন্ডল, রত্না দত্ত, শ্রেয়সী দত্ত, রাহুল দত্ত, পরিমল দত্ত, শিউলি সরদার, পায়েল দত্ত, প্রান্ত দত্ত, শম্পা দত্ত, সুমন দত্ত, মলিনা দত্ত, প্রান্ত দত্ত, চন্দনা দত্ত, তন্ময় দত্ত, মাধবী দত্ত, সুব্রত দত্ত, সোম দত্ত, রত্না দত্ত, আরতি দত্ত, অরবিন্দ দত্ত, রিপন দত্ত, তৃপ্তি বিশ্বাস, রিপন বিশ্বাস, তপন বিশ্বাস, রিজা কর্মকার, পিণ্টু মন্ডল, সঞ্জীব দত্ত, সুন্দরী দত্ত, সেডন বৈদ্য, মোহনা দত্ত, অনিতা দত্ত, রুদ্রিক দত্ত, ফতেপুর গ্রামের পলাশষ বিশ্বাস, জয়পত্রকাটি গ্রামের শুভ্র দেবনাথ, শিবরাম দেবনাথ, বিষ্ণুপুর গ্রামের ঠাকুরদাস বৈদ্য, শেফালীূ দত্ত, হৃদি দত্ত। এ ছাড়া খুলনা আদ দ্বীন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তপন দত্ত, নবকুমার দত্ত, স্বপ্না সেন, প্রতিমা দত্ত, ও প্রোগ্রাম দত্ত। এ ছাড়াও প্রায় ৬০ জন বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা নিয়েছেন।

কালিগঞ্জের বিষ্ণুপুর বানিয়াজাংগাল বাসন্তী পূজা মন্দিরের সভাপতি শংকর দত্ত বলেন, শনিবার রাতে মন্দির প্রাঙ্গনে পূর্ণিমা তিথি উপলক্ষে পূজা-অর্চনা চলছিল। কীর্তন শেষে ভক্তদের মধ্যে প্রসাদ হিসেবে খিচুড়ি বিতরণ করা হয়। পরদিন প্রসাদ খাওয়া ভক্তদের অনেকেই বমি ও পাতলা পায়খানায় আক্রান্ত হন। সময় বাড়ার সাথে সাথে অসুস্থদের সংখ্যা বাড়তে থাকে। অসুস্থতার মাত্রা বেড়ে যাওয়ায় ২০/২৫ জনকে কালিগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ৫ জনকে খুলনার আদ-দ্বীন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এছাড়া অন্যান্যরা স্থানীয় বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি রয়েছেন।

মন্দির কমিটির সদস্য নিমাই সেন জানান, কীর্তন শেষে ৪ বালতিতে করে প্রসাদ বিতরণ করা হয়েছিল। প্রসাদ খেয়ে কারো কারো পাতলা পায়খানা হয়েছে,আবার অনেকেরই কোন সমস্যা হয়নি।

কালিগঞ্জ থানার ওসি মো: শাহীন স্থানীয়দের বরাত দিয়ে জানান, রোববার রাতে কাব্য দত্তকে সাতক্ষীরা শিশু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে সোমবার সকালে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করার জন্য পাঠানো হচ্ছিল। কিন্তু খুলনায় পৌছানোর আগেই ডুমুরিয়া এলাকায় তার মৃত্যু হয়।

কালিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. বুলবুল কবির জানান, বানিয়াজাংগাল মন্দিরের আশপাশে টিউবওয়েলের পানি পরীক্ষা করা হয়েছে কিন্তু পানির কোন সমস্য পাওয়া যায়নি। তবে পুরাতন তেল বা রান্না করা খিচুড়ি দীর্ঘক্ষন পরে খাওয়ার ফলে প্রচণ্ড গ্রামে নষ্ট হয়ে এ ধরণের খাদ্য বিষক্রিয়া হতে পারে।

খিচুড়িতে প্রচুর পরিমাণ ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের কারণে পাতলা পায়খানা বা বমি হতে পারে। সোমবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত কালিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ১০ জন নারী, চারজন শিশু ও ২৪ জন পুরুষ চিকিৎসাধীন রয়েছে।

(আরকে/এসপি/জুন ২৪ ২০২৪)

পাঠকের মতামত:

২২ জুলাই ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test