E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Walton New
Mobile Version

সিলেটের জনপ্রিয় সংঙ্গীত শিল্পী হতে চান শর্মিলা বড়ুয়া 

২০২৪ জুলাই ১০ ১৭:০৫:১৩
সিলেটের জনপ্রিয় সংঙ্গীত শিল্পী হতে চান শর্মিলা বড়ুয়া 

লতিফ নুতন, সিলেট : চট্রগামের মেয়ে শর্মিলা বড়ুয়া সিলেটের জনপ্রিয় সংঙ্গীত শিল্পী হতে চায়। ছোট বেলা থেকে তার স্বপ্ন ছিল সে ভাল একজন কন্ঠ শিল্পী হবে। কিন্তু নিয়তির খেলা বার বার বাধাগ্রহস্থ হওয়ার কারণে সে তার স্বপ্ন পূরণ করতে পারেনি। তার প্রয়াত বাবা দিলিপ বড়ুয়ার শেষ ইচ্ছা ছিল শর্মিলা বড়ুয়া টিনা একজন ভাল সংঙ্গীত শিল্পী হবে। কিন্তু বাবা তার ক্যারিয়ার দেখে যেতে পারেননি। কিন্তু মা রমা বড়ুয়া মেয়ের সংঙ্গীত জগতে ক্যারিয়ার গড়তে চেষ্টা করে যাচ্ছেন। বাবার মৃত্যুও পর নানা কারনে সংঙ্গীত জগতে শর্মিলা ক্যারিয়ার গড়তে হিমশিম খাচ্ছে। কিন্তু তাকে সহযোগিতা করার মত কেউ নেই। বিধাতার দান কন্ঠ নিয়ে তরুনী শর্মিলা বড়ুয়া সংঙ্গীত জগতে শেষ প্রচেষ্টা চালিয়ে স্বাভলম্বী হতে চায়। সকল প্রতিকুলতা মোকাবেলা করে সংঙ্গীত জগতে সিলেটের বিনোদন জগতকে কাপিঁয়ে তুলতে আগ্রহী শর্মিলা বড়ুয়া টিনা।

চট্রগ্রামের রাউজান উপজেলার কেউটিয়া বড়পাড়া গ্রামের প্রয়াত দিলীপ বড়ুয়া বড় মেয়ে শর্মিলা বড়ুয়া দোলা। মা-বাবা আদর করে ডাকে টিনা। আত্বীয় স্বজনের প্রিয় মুখ দোলা। ব্যবসার কারনে বাবা চার দশক পূর্বে সিলেটে আসেন। ১৯৯৩ সালের মে মাসে রমা বড়ুয়াকে বিয়ে করে শর্মিলা বড়ুয়া মা-বাবা যুগলবন্দী হন। ১৯৯৪ সালের ২১ এপ্রিল বহস্প্রতিবার সিলেটের চারাদিঘীর পারে জন্মগ্রহণ করেন কন্ঠ শিল্পী শর্মিলা বড়ুয়া টিনা। হাঠি হাঠি পা পা করে সাড়ে তিন বছর বয়সে তার তার সংঙ্গীত জগতে যাত্রা শুরু বাবা দিলীপ বড়ুয়ার আর মা রমা বড়ুয়ার আগ্রহে। তিন ভাই বোনের মধ্যে শর্মিলা সবার বড়। ছোট বোন টুম্পা আর একমাত্র ভাই রিমন। কন্ঠ শিল্পী শর্মিলা বড়ুয়ার মা সকল প্রতিকুলতার আবহাওয়াকে মোকাবেলা করে সাংসারিক জীবন চালিয়ে যাচ্ছেন। তারপর তিনি মুখ খুলছেন না।

সাড়ে তিন বছর বয়সে শর্মিলা বড়ুয়া সংগীত জগতে হাতখড়ি। প্রথম উস্তাদ ছানা গোপাল । চার বছর বয়স থেকে সে হারমোনিয়ান দিয়ে চর্চা শুরু করে। শিশু জীবনের প্রথম চার বছর তার হারমোনিয়াম দিয়ে শিক্ষা নেয়। সে রবীন্দ্র সংঙ্গীত, আধুনিক গান শুরু করে। রবীন্দ্র সংঙ্গীত তার প্রিয় গান। আধুনিক গান তো আছেই।

পরবর্তীতে তার নিকট আত্বীয় কন্ঠ শিল্পী সুমন বড়ুয়ার হাতে শর্মিলা বড়ুয়ার সংঙ্গীত জীবনে আবার পদার্পন হয়। শুরু হয় ২য় বারের মত আবার সংঙ্গীত জীবনে প্রবেশ। তার উস্তাদ এবং নিকট আত্বীয় সুমন বড়ুয়ার হাত ধরে সে একজন পুরো কন্ঠ শিল্পী হওয়ার স্বপ্ন দেখে। সুমন বড়ুয়ার মাধ্যমে বিভিন্ন অনুষ্টানে সংঙ্গীত পরিবেশন করে। রবীন্দ্র সংঙ্গীত আর আধুনিক গানের পাশাপাশি সে ফোক গানের চেষ্টা করে। শর্মিলা বড়ুয়া তার বাবা দিলিপ বড়ুয়া ২০২১ সালের ২৭ মার্চ মহামারী করোনায় মারা যাওয়ার পর আবার হুছুট খায়। মানষিক ভাবে ভেঙ্গে পড়ে। বন্ধ হয়ে যায় তার স্বপ্ন কন্ঠ শিল্পী হওয়া। মা-বারার বড় সন্তান হিসেবে তার অনেক স্বপ্ন ছিল। কিন্তু নানা প্রতিবন্ধিকতার কারনে এগিয়ে যেতে পারছেনা।

সাম্প্রতিক সময়ে আবার ক্যারিয়ার গড়া নিয়ে আবারও কন্ঠ শিল্পী সুমন বড়ুয়ার হাত ধরে সংঙ্গীত জগতে প্রবেশ করে। সুমন বড়ুয়া তার এক বন্ধুর সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়। তার বন্ধুকে বলে কন্ঠ শিল্পী শর্মিলা বড়ুয়ার ভাল কন্ঠ রয়েছে। আপনি একটু চেষ্টা বা সহযোগিতা করলে শর্মিলা বড়ুয়া টিনা ভাল একজন কন্ঠ শিল্পী হতে পারবে। তিনি সুরমা কন্ঠ নামে একটি ইউটিউব চ্যানেলে এবং একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে তাকে কাজ দেয়ার অনুরোধ করেন। তাতে তিনি চেষ্টা করবেন বলেন। বর্তমানে সে সুরমা কন্ঠ ইউটিউব চ্যানেলে এবং একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে একজন সংবাদ কর্মী হিসেবে শর্মিলা বড়ুয়া টিনা আবার কাজ শুরু করেছে। ইউটিউব চ্যানেল সুরমা কন্ঠে শর্মিলার প্রথম গান “আমি তোর মনি বন্ধুরে” ইতিমধ্যে ভাইরাল হয়েছে। “আমি তোর মনিরে বন্ধু” শর্মিলার কন্ঠে খুব জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

কন্ঠ শিল্পী শর্মিলা বড়ুয়া টিনার মা রমা বড়ুয়া বলেন, তার প্রয়াত বাবা দিলিপ বড়ুয়ার স্বপ্ন তার মেয়ে কন্ঠ শিল্পী হবে। তার বাবার শেষ ইচ্ছা তিনি পূরন করতে চান। তার বাবা আজ নেই। কিন্তু তার বাবা স্বপ্ন যদি টিনা পূরন করতে পারে তাহলে সে যেভাবে ক্যারিয়ার গড়তে পারবে আবার পারিবারিক ভাবে তাদের সহায়তা হবে। তিনি আরো বলেন, সে দীর্ঘ দিন গান বন্ধ রাখার পর আবার সুরমা কন্ঠে কন্ঠ যোগ দিয়েছে তাতে মনে হচ্ছে সে পারবে। সুরমা কন্ঠ তাকে আন্তরিক ভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছে।

কন্ঠ শিল্পী শর্মিলা বড়ুয়া টিনা বলেন, আমি আবার সংঙ্গীত জগতে ফিরে যেতে চাই। বারার মৃত্যুও পর যে হুছুট খেয়েছি। তা থেকে বেরিয়ে আসতে এবং ক্যারিয়ার গড়তে আবার সংঙ্গীত জগতে ছুটেছি। তাতে সকলের দোয়া ও আর্শিবাদ চাই। ইউটিউব চ্যানেল সুরমা কন্ঠ যেভাবে আমাকে সহয়োগিতা করছে তাতে মনে হচ্ছে আমি পারবো। আমি আধুনিক গান, রবীন্দ্র সংঙ্গীত এর পাশাপাশি এখন ফোক গান, বাউল শাহ আব্দুল করিম, হাছন রাজা, রাধা রমন সহ বিভিন্ন গীতিকারদের গান পরিবেশন করবো। যদিও সিলেটে জন্ম কিন্ত সিলেটী ভাষা বুঝতে অসুবিধা হয় কিন্তু সকল চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে বাবার রেখে যাওয়া স্বপ্ন আমি বাস্তবায়ন করতে যাবো। তাইা প্রয়োজন সকলের আর্শিবাদ।

গত বাবা দিবসে শর্মিলা ফেইসবুকে ষ্ট্যাটাস দিয়েছে, বাবা তুমি আমাদের বটবৃক্ষের ছায়া, তোমার ছায়া ডাকা পরিবেশ আজ নিরবতা হয়ে গেছে। জীবনের যত গল্প সব তোমাকে ঘিরে বাবা, বড্ড ভালোবাসি বাবা তোমাকে তোমার হাতে গড়া এই স্বপ্ন একদিন হলেও রঙিন হবে। জীবনের যত ইচ্ছে চাওয়া পাওয়া কখনো অপরিপূর্ণ রাখো নাই, নিজ নিজ দায়িত্বে সব পালন করে গেছো, কখনো তোমার প্রতি কোন অভিযোগ ছিল না জীবনে যতটুকু সম্ভব ঝড় বৃষ্টি মাথায় নিয়ে কাজের পিছনে ছুটতে যখন যেখানে যাওয়ার দায়িত্ব কে হার মানতে দাও নি। যখন যা দিয়ে গেছো তা নিয়ে কখনো অভিযোগ ছিল না বাবা হয়তো মানুষ করতে পেরেছো সার্মথ অনুযায়ী সার্মথের বাহিরে কোন আবদার চাহিদা ছিল না। ভালো থাকো বাবা ভালো থাকুক বিশ্বের সকল বাবার সুস্থতা কামনা করছি ভালোবাসা অবিরাম বাবা ওপারে ভালো থাকো তুমি বাবা।

(এলএন/এসপি/জুলাই ১০, ২০২৪)

পাঠকের মতামত:

১৩ জুলাই ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test