E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Walton New
Mobile Version

নগরকান্দায় রাতের আঁধারে বিধবার বাড়ি দখলের চেষ্টা

২০১৭ জানুয়ারি ৩১ ২০:২৮:৩৬
নগরকান্দায় রাতের আঁধারে বিধবার বাড়ি দখলের চেষ্টা

আবু নাসের হুসাইন, সালথা : ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার নগরকান্দা পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডভুক্ত সরকারি জমিতে লিজ নিয়ে প্রায় ৪০ বছর ধরে বসবাস করছেন কনিকা রানী সাহা নামের অসহায় এক বিধবা মহিলা। দীর্ঘদিন ধরে ওই বাড়ির ৫ শতাংশ জমি দখলের জন্য পাঁয়তারা চালাচ্ছেন স্থানীয় প্রভাবশালী এক ব্যক্তি। গত রবিবার রাতে ৩০/৪০ জনের একটি বাহিনী বিধবার বাড়িতে হামলা চালিয়ে জমি দখলের চেষ্টা চালায়। এসময় কনিকা রানীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে দখলকারীরা চলে যেতে বাধ্য হয়।

কনিকা রানী অভিযোগ করে বলেন, তার স্বামী সরকারের কাছ থেকে জায়গাটি লিজ নিয়েছিলেন ৪০ বছর আগে। সেই থেকে তারা সরকারের সকল নিয়মকানুন মেনে বসবাস করে আসছে। স্থানীয় প্রভাবশালী জালাল মোল্যা নামের এক ব্যক্তি জমিটি হাতিয়ে নিতে দীর্ঘদিন ধরে পাঁয়তারা চালাচ্ছে। বিভিন্ন সময় হুমকি ও ভয়ভীতি দেখিয়ে আমাকে জায়গা থেকে সরে যেতে বলা হয়। কিন্তু আমি জায়গা ছেড়ে না গেলে আমাকে প্রানে মেরে ফেলা হবে বলেও হুমকি দেয়া হয়।

কনিকা রানী আরো জানান, রবিবার রাতে জালালের নেতৃত্বে ৩০/৪০ জন তার বাড়িতে ঢুকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। পরে তারা আমাকে বাড়ি থেকে জোরপূর্বক বের করার চেষ্টা করলে আমি চিৎকার করি। পরে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে আমাকে উদ্ধার করে। পুলিশ আসার খবর পেয়ে হামলাকারীরা চলে যায়। যাবার আগে হুমকি দিয়ে বলে, আমি স্বেচ্ছায় এ জায়গা ছেড়ে না গেলে আমাকে লাশ বানিয়ে নদীতে ফেলে দেয়া হবে। বর্তমানে আমি চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

নগরকান্দা পৌরসভার প্যানেল মেয়র নিমাই সরকার, ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর দেলোয়ার হোসেন দিলু জানান, বিধবা মহিলাটি দীর্ঘদিন ধরে লিজ নিয়ে বসবাস করে আসছে। কিন্তু সেই জায়গাটি হাতিয়ে নিতে জালাল চেষ্টা করছে। জালালের নেতৃত্বে বিধবার বাড়িতে হামলার রাতে আমরা ঘটনাস্থলে যাই।

বিধবা মহিলাকে হামলাকারীদের হাত থেকে রক্ষা করি। তারা জানান, জালাল একজন চিহ্নিত প্রতারক। সে বেশ কয়েকমাস আগে একাধিক মন্ত্রী ও সচিবের সই সিল জাল করে র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হয়েছিল। কিছুদিন জেল খেটে সে বের হয়। ওর কাজই হচ্ছে, বিভিন্ন দপ্তরের সচিবের সই, সিল জাল করে প্রতারনা করে। তারা আরো জানান, জালালের বাবা একজন ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা। মুক্তিযোদ্ধার নাম ভাঙ্গিয়ে সে তার ছেলেদের চাকুরী দিয়েছে।

এ বিষয়ে জালালের সাথে কথা বলার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি তবে জালালের পিতা ইমানউদ্দিন জানান, আমার ছেলে কারো জমি দখল করতে যায়নি।

এ ঘটনার পর কনিকা রানী নগরকান্দা থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করেছেন। নগরকান্দা থানার এসআই কবির হোসেন জানান, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগ মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে|

(এএনএইচ/এএস/জানুয়ারি ৩১, ২০১৭)

পাঠকের মতামত:

১৬ জুলাই ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test