E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Technomedia Limited
Mobile Version

ধর্ষণ অভিযোগে ‘মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছেন’ লামিচানে

২০২২ সেপ্টেম্বর ২৭ ১৩:১০:২০
ধর্ষণ অভিযোগে ‘মানসিক ভারসাম্য হারিয়েছেন’ লামিচানে

স্পোর্টস ডেস্ক : গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির প্রায় দুই সপ্তাহ পর মুখ খুললেন নেপালের সদ্য সাবেক অধিনায়ক সন্দীপ লামিচানে। ধর্ষণের অভিযোগে শারীরিক ও মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ায় কিছুদিন নিজেকে সবকিছু থেকে দূরে রেখেছিলেন ২২ বছর বয়সী এ তারকা লেগস্পিনার।

চলতি মাসের শুরুতে লামিচানের বিরুদ্ধে থানায় ধর্ষণের অভিযোগ করেন ১৭ বছর বয়সী এক কিশোরী। এই অভিযোগের পর মামলা নথিভুক্ত হলে গত ৯ সেপ্টেম্বর তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে নেপাল পুলিশ। একইসঙ্গে নিজেদের তখনকার অধিনায়ককে নিষিদ্ধও করে ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব নেপাল (সিএএন)।

দেশে যখন এসব হচ্ছিল তখন ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে খেলার জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজে অবস্থান করছিলেন লামিচানে। ধারণা করা হচ্ছিল, আইনি প্রক্রিয়া শুরুর জন্য তখনই হয়তো দেশে ফিরে যাবেন তিনি। তবে তা করেননি নেপালের এ বিশ্বতারকা। বরং নিজেকে আইসোলেশনে রাখেন লামিচানে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দেওয়া বিবৃতিতে লামিচানে জানিয়েছেন, ধর্ষণের অভিযোগ তার মানসিক ভারসাম্যে আঘাত হেনেছে এবং দুশ্চিন্তার কারণে শারীরিকভাবেও দুর্বল হয়ে পড়েছেন। নিজের অবস্থার উন্নতি ঘটা মাত্রই নেপালে ফিরে আইনি লড়াই শুরু করবেন তিনি।

সোমবার নেপালি ভাষায় করা পোস্টে লামিচানে লিখেছেন, ‘আমার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়া জারি এবং যে মামলা করা হয়েছে, সেই খবর আমাকে ব্যথিত করেছে এবং আমি অসুস্থ হয়ে পড়ি। আমি তখন বুঝতেই পারছিলাম না আমার কী করা উচিত, কী করা উচিত নয়।’

তিনি আরও লিখেছেন, ‘পুরো ঘটনা মানসিকভাবে আমাকে ধাক্কা দিয়েছে, একইসঙ্গে শারীরিকভাবে দুর্বল করে দিয়েছে। মানসিক চাপ ও অসুস্থ শরীরে আমি নিজেকে আইসোলেশনে রাখি। এই অভিযোগ আমাকে মানসিক ও শারীরিকভাবে বিপর্যস্ত করে দিয়েছে, আমি ভারসাম্যহীন অবস্থায় পড়ে গিয়েছি।’

শিগগিরই নেপাল ফেরার কথা জানিয়ে তিনি লিখেছেন, ‘আমি এখন চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চলে স্বাভাবিক হওয়ার চেষ্টা করছি। আমার শরীর ক্রমেই উন্নতির দিকে। যত দ্রুত সম্ভব নেপাল ফিরে এই মিথ্যা অভিযোগের বিরুদ্ধে লড়াই করার চেষ্টা করছি আমি।’

এসময় নিজেকে আরও একবার নির্দোষ দাবি করে লামিচানে আরও লিখেছেন, ‘আমি অবশ্যই এ মিথ্যা অভিযোগের বিরুদ্ধে আইনি লড়াই লড়বো। যতদূর জানি, আমি দোষী প্রমাণিত হওয়ার আগপর্যন্ত অবশ্যই নির্দোষ। সংবিধান আমাদেরকে মান-সম্মানের সহিত বাঁচার, নির্যাতনের বিরুদ্ধে লড়াই করার এবং আইনি পরামর্শকের পরামর্শ নেওয়া অধিকার দিয়েছে।’

গতবছর নেপাল জাতীয় দলের অধিনায়কত্ব পেয়েছেন লামিচানে। গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির সময়ও নেপালের অধিনায়ক ছিলেন তিনি। এর আগে ২০১৬ সালের অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপেও দলকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তিনি। ভারতের আইপিএল, অস্ট্রেলিয়ার বিগ ব্যাশসহ বিভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ খেলার অভিজ্ঞতা রয়েছে লামিচানের।

ওয়ানডে ক্রিকেটে বিশ্বের দ্রুততম বোলার হিসেবে ৫০ উইকেট, টি-টোয়েন্টিতে বিশ্বের তৃতীয় দ্রুততম বোলার হিসেবে ৫০ উইকেট নেওয়া রেকর্ড রয়েছে লামিচানের। সাফল্যের ধারাবাহিকতায় চলতি সিপিএলে জ্যামাইকা তালাওয়াজের হয়ে খেলার কথা ছিল তার। কিন্তু মামলার কারণে সেটি আর সম্ভব হয়নি।

উল্লেখ্য, কাঠমান্ডু পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ২২ আগস্ট নেপাল ক্রিকেট দলের কেনিয়া সফরের আগে লামিচানে ওই কিশোরী ভক্তকে ভক্তপুরে ঘুরতে যাওয়ার অনুরোধ করেন। কিশোরী রাজি হন। রাতে ওই কিশোরী মধ্য বানেশ্বরে নিজের হোস্টেলে ফিরে যেতে চাইলেও লামিচানে বাধা দেন।

হোস্টেল আটটার মধ্যে বন্ধ হয়ে যাওয়ায় হোটেলে লামিচানের সঙ্গে রাত কাটাতে বাধ্য হন ওই কিশোরী। প্রথমে তিনি আলাদা ঘরে থাকতে চান। সেটাও হতে দেননি লামিচানে। পরিবর্তে নিজের ঘরে ডেকে এনে ওই কিশোরীকে দু’বার ধর্ষণ করেন তিনি। কিশোরীর বাবা-মা অভিযোগ জানানোর পর পুলিশ তদন্ত করে এই তথ্য জানতে পেরেছে।

(ওএস/এএস/সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২)

পাঠকের মতামত:

২৮ নভেম্বর ২০২২

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test