E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Technomedia Limited
Mobile Version

মেসির হাতে বাংলাদেশের পতাকা 

২০২২ নভেম্বর ২৯ ১৭:২১:৪৯
মেসির হাতে বাংলাদেশের পতাকা 

স্পোর্টস ডেস্ক : বাংলাদেশে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ফুটবল সমর্থকদের উন্মাদনার খবর ছড়িয়ে পড়েছে সারা বিশ্বে। জানতে বাকি নেই লিওনেল মেসিদেরও। তাই বাংলাদেশি ভক্তদের জন্য বিশ্বকাপের মধ্যেই দারুণ উপহার দিলো আর্জেন্টিনা। মেসির হাতে বাংলাদেশের পতাকা যুক্ত একটি ছবি পোস্ট করা হয়েছে আর্জেন্টাইন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন প্রফেশনাল ফুটবল লিগের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে।

একই ছবি শেয়ার করা হয়েছে প্রফেশনাল লিগের ভেরিফায়েড টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকেও। এতে দেখা যায়, আর্জেন্টিনার জার্সি পরা উল্লাসিত মেসি মাঠের মধ্যে বাংলাদেশের পতাকা হাতে ছুটছেন।

যদিও দেখেই বোঝা যাচ্ছে, সম্পাদনা (এডিট) করে ছবিতে বাংলাদেশের পতাকা যোগ করা হয়েছে। তবে আর্জেন্টাইন ফুটবল ফেডারেশনের নিয়ন্ত্রণাধীন একটি ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ থেকে বাংলাদেশি সমর্থকদের সম্মান জানানোর এই উদ্যোগকে খাটো করে দেখার সুযোগ নেই।

সম্পাদনা করা ছবিতে হলেও মেসির হাতে বাংলাদেশি পতাকা ও সেটি আর্জেন্টাইন ফুটবল ফেডারেশনের নিয়ন্ত্রণাধীন ভেরিফায়েড পেজ থেকে পোস্ট হওয়ায় উচ্ছ্বাসিত এ দেশের ভক্তরা।

বিশ্বকাপ এলেই মোটামুটি দুইভাগে বিভক্ত হয়ে যান বাংলাদেশের ফুটবলপ্রেমীরা। একপক্ষ ব্রাজিল, আরেকপক্ষ আর্জেন্টিনার সমর্থক। এ নিয়ে আগেও আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে। সম্প্রতি বিষয়টি নিয়ে বিশাল প্রতিবেদন করেছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম দ্য ওয়াশিংটন পোস্ট। ফিফার ভেরিফায়েড টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে শেয়ার করা হয়েছে বাংলাদেশে আর্জেন্টিনা-সমর্থকদের উল্লাসের ভিডিও।

কিছুদিন আগে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী এক আর্জেন্টাইন অধ্যাপকও বাংলাদেশে আর্জেন্টিনা-সমর্থকদের নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন। ওই ব্যক্তির নাম মার্টিন বেরাজা। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) একজন সহকারী অধ্যাপক।

সম্প্রতি নিজের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে করা পোস্টে মার্টিন জানান, তিনি ট্যাক্সিতে চড়ে নিউইয়র্কের জন এফ কেনেডি বিমানবন্দরে যাচ্ছিলেন। এসময় গাড়ির চালক তাকে জিজ্ঞেস করেন, ‘আপনি কোথা থেকে এসেছেন?’ আমি বলি, ‘আর্জেন্টিনা।’

এরপর চালক পেছনে ঘুরে তার জ্যাকেট খুলে দেখান। তিনি আর্জেন্টিনার ১০ নম্বর জার্সি পরা ছিলেন। তিনি বলেন, ‘আমি বাংলাদেশ থেকে এসেছি। আমরা অনেক বড় ভক্ত! আমার কথা বিশ্বাস হচ্ছে না তো? দাঁড়ান দেখাচ্ছি...’

প্রথমে ওই বাংলাদেশি ট্যাক্সিচালক তার বাড়ির ছবি দেখান। এর বারান্দায় আর্জেন্টিনার বড় একটি পতাকা ঝুলছিল। তারপর ইউটিউব চালু করেন এবং শত শত বাংলাদেশি ভক্ত আর্জেন্টিনার জার্সি পরে মিছিলের একটি ভিডিও দেখান।

সেই ভিডিওর লিংকও শেয়ার করেছেন আর্জেন্টাইন অধ্যাপক মার্টিন। এটি ছিল ‘বাগেরহাটে আর্জেন্টিনা সমর্থকদের উন্মাদনা’ শিরোনামে একটি বাংলাদেশি সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন।

মার্টিন আরও জানান, সেই বাংলাদেশি তাকে বলেছেন, বাংলাদেশের ৮০ শতাংশ মানুষ আর্জেন্টিনাকে সমর্থন করেন এবং কাতার তাদের একটি গুরুত্বপূর্ণ অভিবাসন গন্তব্য। এরপর আমি উইকিপিডিয়া দেখি। কাতারে চার লাখ বাংলাদেশি রয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘এই পর্যায়ে আমি হতবাক! বাংলাদেশের জনসংখ্যা প্রায় ১৫ কোটি (আবারও উইকিপিডিয়াকে ধন্যবাদ)। তার (গাড়িচালক) হিসাব অনুযায়ী, আর্জেন্টিনার চেয়েও আর্জেন্টিনা-সমর্থক বেশি রয়েছে বাংলাদেশে। এমনকি, কাতারেও আর্জেন্টাইনদের চেয়ে বেশি বাংলাদেশি সমর্থক থাকবে।’

(ওএস/এসপি/নভেম্বর ২৯, ২০২২)

পাঠকের মতামত:

৩১ জানুয়ারি ২০২৩

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test