E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

পরস্পরবিরোধী শক্তির মধ্যে সংঘাত অনিবার্য

২০২১ এপ্রিল ১৪ ১৪:২৯:৩৮
পরস্পরবিরোধী শক্তির মধ্যে সংঘাত অনিবার্য

আবীর আহাদ


ঐতিহাসিক দ্বন্দ্বমূলক বস্তুবাদের অনিবার্য ধারায় শুভ-অশুভের পরস্পরবিরোধী অবস্থান সুস্পষ্ট । এ অবস্থার প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশ চ্যাপটারেও চলছে অশুভশক্তির বিরুদ্ধে শুভশক্তির নিরন্তর নীরব লড়াই । এ লড়াইয়ের ক্রমধারাবাহিকতায় শুভশক্তির ঐক্যাবস্থান দৃশ্যমান না হলেও শ্রমজীবী মেহনতি ও সাধারণ মানুষের অবচেতন মনে ঠিকই একটি বৈপ্লবিক পরিবর্তনের আকাঙ্খা বিরাজ করছে । ক্রমান্বয়ে জাগ্রত হচ্ছে ।

আপাত: সুপ্ত শুভশক্তির নীরবতার সুযোগ নিয়ে রাষ্ট্রশক্তির পৃষ্ঠপোষকতায় দুর্নীতিবাজ লুটেরা ধর্মান্ধ ও মাফিয়া অপশক্তি সমাজের সর্বত্র দাপিয়ে বেড়াচ্ছে । অশুভশক্তির পুঁজির বিকৃত কার্যক্রমের ফলশ্রুতিতে নীতি-নৈতিকতা, মানবিক মর্যাদা ও সামাজিক মূল্যবোধে ঘটছে সীমাহীন বিপর্যয় । অন্যায় মিথ্যাচার নিষ্ঠুরতা ও নৃশংসতা সমাজের বুকে জেঁকে বসেছে । মানুষের মধ্যে শ্রদ্ধাবোধ, দয়ামায়া, সহমর্মিতা ও সম্প্রীতির চরম বিপর্যয় ঘটেছে । সুদূর অতীত থেকে চলে-আসার পথপরিক্রমায় সমাজও দু'টি শ্রেণীতে বিভক্ত হয়ে পড়েছে । Have & Have not-----শোষক ও শোষিত = ধনী ও দরিদ্র ।

সমাজ-রাষ্ট্র যখন সংখ্যায় ক্ষুদ্র ধনিক ও ব্যাপক দরিদ্রে পর্যবসিত হয়, তখন পরস্পরবিরোধী উভয় শ্রেণীর নিরাপত্তার বিষয়টিও কিন্তু অনিবার্যভাবে বিঘ্নিত হয়ে পড়ে । তাই নির্দ্বিধায় বলা যায়, যে সমাজে ব্যাপক মানুষের জীবনের আশা-আকাঙ্খা ও আর্থসামাজিক নিরাপত্তা থাকে না, সে-সমাজে ক্ষুদ্র শোষক-ধনিকগোষ্ঠীরও নিরাপত্তা থাকে না । এমনি একটি অনুভবের কথা আমরা একদা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জেনারেল আইজেন হাওয়ারের বক্তব্য থেকেও জানতে পারি । তিনি বলেছিলেন : If a free society cannot help the poor who are much, it cannot safe the rich who are few.

কারণ ব্যাপক দরিদ্র মানুষের জাগরণের মধ্যেই ক্ষুদ্র ধনিকগোষ্ঠীর মৃত্যুবাণ নিহিত । এজন্য সংখ্যায় ক্ষুদ্র ধনিক শোষকশ্রেণী তাদের কর্তৃত্ব প্রবহমান রাখার লক্ষ্যে নানান পন্থায় বিশেষ করে সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে পৃষ্ঠপোষকতা দিয়ে তাদের পক্ষে মাঠে নামিয়ে দেয় । কারণ ব্যাপক সাধারণ শ্রমজীবী দরিদ্র মানুষের আদর্শ হয়ে থাকে সমাজতন্ত্র । আর তাদের ঐক্যের সোপান হয় ধর্মনিরপেক্ষতা ।

সাম্প্রদায়িক মোল্লাতন্ত্র ঠিক এখানেই ধর্মের কুঠার আঘাত হানে । ধনিক শোষকদের অর্থশক্তিতে বলীয়ান হয়ে ধর্মীয় মোল্লারা নানান সভা সমাবেশ জলসা ধর্মসভা প্রভৃতি জনসমাবেশে শ্রমজীবী মেহনতি মানুষের পক্ষে কিছু নীতিকথা আউড়ে তাদের মন জয় করার একটা কৌশল অবলম্বন করে । তারা তাদের পক্ষে মেকী সমবেদনা জানানোর জন্য ধর্মগ্রন্থ ও ধর্মীয় সমাজের ইতিহাস থেকে কিছু মানবিক গল্পকথা তুলে ধরে । যেমন, কোনো একটা উদাহরণ দিয়ে বলে, শ্রমিকের গায়ের ঘাম শুকিয়ে যাওয়ার পূর্বেই তাদের পারিশ্রমিক প্রদান করলে বহু সওয়াব পাওয়া যায় । এ ধরনের কিছু মানবীয় উদাহরণ দিয়েই তারা অতি কৌশলে শ্রমজীবী মানুষের আদর্শ সমাজতন্ত্র ও ধর্মনিরপেক্ষতাকে কুফরি মতবাদ, নাস্তিকতার দর্শন বলে বিষোদগার করে থাকে । সমস্ত ধর্মীয় সমাজ তারস্বরে এভাবে সমাজতন্ত্র, ধর্মনিরপেক্ষতা, বিজ্ঞান, তর্কশাস্ত্র, দর্শন প্রভৃতি মতবাদের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ার ফলে বিশাল অজ্ঞ ও অর্ধশিক্ষিত শ্রমজীবী সাধারণ মানুষ বিপুলভাবে বিভ্রান্ত হয়ে পড়ে । ফলে ধর্মের বেড়াজালের কারণে তাদের মধ্যে সহজে আদর্শিক ঐক্য গড়ে উঠতে পারে না । শ্রমজীবী সাধারণ মানুষের মধ্যকার অনৈক্যের সুযোগ নিয়ে ধনিক শোষকশ্রেণী এভাবেই তাদের শাসন ও শোষণ নিরুদ্বিগ্নে চালিয়ে যাওয়ার মওকা পেয়ে যায় ।

তবে এটাই শেষ নয় । ধনিক শোষকশ্রেণী যতোই তাদের অপশাসন ও শোষণকার্য পরিচালনা করুক না কেনো, তাদের সীমাহীন ভোগবিলাস ও বল্গাহীন লুটপাটের প্রেক্ষিতে শ্রমজীবী সাধারণ মানুষ ভেতরে ভেতরে প্রতিবাদ মুখর হওয়ার কোনো এক পর্যায়ে কোনো শুভ রাজনৈতিক শক্তির নেতৃত্বে সব দ্বিধাদ্বন্দ্ব ভেঙে দুর্বারগতিতে শোষকশ্রেণীর মারণাস্ত্র মাড়িয়ে রাজপথে বেরিয়ে এলেই শোষক-প্রতারক শ্রেণীর পতন ঘটে । পৃথিবীর বহু দেশে এ-ধরনের শ্রমজীবী মানুষের বৈপ্লবিক কর্মধারার উদাহরণ রয়েছে ।

উপসংহারে এটাই বলা যায়, মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশ সমাজে যেভাবে এক সর্বগ্রাসী দুর্নীতিবাজ লুটেরা ধর্মান্ধ মাফিয়া অশুভশক্তির প্রতিবিপ্লবী তাণ্ডব চলছে, সেই প্রতিবিপ্লবী তাণ্ডবের প্রতিক্রিয়ায় সাধারণ মানুষের মধ্য থেকে অবলীলাক্রমে শুভশক্তির উদ্ভব ঘটবেই । আজ যেমনি ব্যাপক দরিদ্র-শোষিত মানুষের জীবনের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হচ্ছে, কাল তেমনি ক্ষুদ্র ধনিক-শোষক-প্রতারক শ্রেণীর নিরাপত্তা বিঘ্নিত হবেই । এটাই ঐতিহাসিক দ্বন্দ্বমূলক বস্তুবাদের সার কথা ।

লেখক :চেয়ারম্যান, একাত্তরের মুক্তিযোদ্ধা সংসদ।

পাঠকের মতামত:

১২ মে ২০২১

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test