E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Walton New
Mobile Version

নিউ ইয়র্কে মাতালের হাতে আ.লীগের জ্যেষ্ঠ নেতা লাঞ্ছিত

২০২৪ জুন ১৩ ১৬:৪৪:০০
নিউ ইয়র্কে মাতালের হাতে আ.লীগের জ্যেষ্ঠ নেতা লাঞ্ছিত

ইমা এলিস, নিউ ইয়র্ক : যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে এক মাতালের হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের জ্যেষ্ঠ নেতা। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (১১ জুন) মধ্যরাতে নিউ ইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে এ ঘটনাটি ঘটে। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতাদের সামনেই নিউ ইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের হাতে লাঞ্ছিত হন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক। যুক্তরাষ্ট্রে সফররত ঢাকার জনৈক নেতাও এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গত মঙ্গলবার রাতে জ্যাকসন হাইটসের একটি রেস্তোরাঁয় আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগ। গুটি কয়েক সদস্য ও নতুন নিয়োগপ্রাপ্তদের নিয়ে অনুষ্ঠিত উক্ত সভা শেষ হবার পর মধ্যরাত পর্যন্ত রেস্তোরাঁর বাইরে আড্ডা দিচ্ছিলেন দলের সকলেই। এমন সময় যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও জ্যেষ্ঠ নেতা মহিউদিন দেওয়ানকে দেখতে পেয়ে তাকে অশ্লিল ভাষায় গালাগালি শুরু করেন নিউ ইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইমদাদ চৌধুরী। মহিউদিন দেওয়ান এসব শুনে অস্বস্তিবোধ করলেও কোন প্রতিবাদ করেননি কারণ ইমদাদ ঐ সময় মদ্যপ ছিলেন। ফলে তিনি আরও দূরে চলে যান। তিনি সরে গেলে ইমদাদের গালাগালির মাত্রা আরও বেড়ে যায়।

পরে আতাউর সেলিম ইমদাদকে টেনে ঘটনাস্থল থেকে অন্যত্র নিয়ে যান। তবে মজার ব্যাপার হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের সভাপতি সস্ত্রীক ও কেন্দ্রিয় নেতা আব্দুস সোবহান গোলাপকে লাঞ্ছিতকারী এবং পুর্বে 'নো মোর সিদ্দিক' আন্দোলনকারীদের নিয়ে অন্য পার্শ্বে দাঁড়িয়ে মজা নিচ্ছিলেন সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান। কোন প্রতিবাদ বা তাকে থামাতে কেউ এগিয়ে আসেননি। কারণ নেতারাও জানতেন ইমদাদ ঐ সময় মাতাল ছিলেন। মহিউদিন দেওয়ানকে লাঞ্ছিত করার পেছনে ড. সিদ্দিকুর রহমানের ও ডা. মাসুদুল হাসান হাত রয়েছে এবং তারাই ইমদাদকে উসকে দিয়েছেন বলে অনেকেই ধারণা করছেন।

মহিউদিন দেওয়ান বলেন, ইমদাদ তাকে দেখে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করেছেন। খুবই বিব্রতবোধ করলেও বড় অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে তিনি তাৎক্ষণিক প্রতিবাদ করেননি। কারণ হিসেবে তিনি উল্লেখ করেন নিজের মানসম্মান বজায় রাখতেই তিনি ঝামেলায় জড়াতে চাননি। তিনি জানান গালাগালির সময় ইমদাদ ডা. মাসুদুল হাসানকে কটাক্ষ করার কথা বারবার উল্লেখ করেছেন। কিন্তু তিনি মাসুদুল হাসানকে কোন কটাক্ষ করেননি উল্লেখ করেন।

এ ব্যাপারে ইমদাদ চৌধুরীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, মহিউদিন দেওয়ানকে কোন গালাগালি করেননি। ডা. মাসুদুল হাসানকে নিয়ে তিনি অনেক বাজে মন্তব্য করেছেন তাই সেসব বিষয় নিয়ে তিনি কথা বলেছেন।

এ ঘটনার সত্যতা যচাইয়ের জন্য যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগের মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনা স্বীকার করে বলেন, কথা কাটাকাটি হয়েছে। যা ঘটছে নিউজ হওয়ার মত না। আমি ওখানে উপস্থিত ছিলাম।

(আইএ/এসপি/জুন ১৩, ২০২৪)

পাঠকের মতামত:

১৪ জুলাই ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test