E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Technomedia Limited
Mobile Version

‘স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দ বাড়াতে হবে’

২০২২ মে ১৩ ১৪:৩১:৫৩
‘স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দ বাড়াতে হবে’

স্টাফ রিপোর্টার : স্বাস্থ্য খাতে মোট বাজেটের ৫-৬ শতাংশ বরাদ্দ দেওয়ার প্রবণতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান।

তিনি বলেছেন, প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবায় মোট স্বাস্থ্য বরাদ্দের ২৫ শতাংশের মতো বরাদ্দ দেওয়া হয়। এই অনুপাত আসন্ন অর্থবছরে ৩০ শতাংশ এবং মধ্যমেয়াদে ৩৫-৪০ শতাংশে উন্নীত করতে হবে।

বৃহস্পতিবার (১২ মে) অনলাইনে বাংলাদেশ হেলথ ওয়াচ, ব্র্যাক জেমস পি গ্র্যান্ট স্কুল অব পাবলিক হেলথ, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় এবং উন্নয়ন সমন্বয়ের আয়োজনে ‘স্বাস্থ্য বাজেট বিষয়ক অনলাইন জাতীয় সংলাপ’ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে বিনামূল্যে ওষুধ সরবরাহের জন্য যে বরাদ্দ আছে তা তিনগুণ করা গেলে মোট স্বাস্থ্য ব্যয়ে নাগরিকদের নিজস্ব খরচ ৬৮ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৫৮ শতাংশের নিচে নেওয়া সম্ভব।

অনুষ্ঠানে আলোচকরা বলেন, বর্তমানে চলমান ভূ-রাজনৈতিক পরিস্থিতি এবং দেশের সামষ্টিক অর্থনৈতিক বাস্তবতা ও সম্ভাবনায় আসন্ন ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেট কিছুটা সঙ্কোচনমুখী হতে পারে। তবে স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দের ক্ষেত্রে কোনো কাটছাঁট করা একেবারেই সমীচীন হবে না। বরং এ খাতে বরাদ্দ উল্লেখযোগ্য মাত্রায় বাড়িয়ে, সেই বর্ধিত বরাদ্দের বৃহত্তম অংশটি প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা বাবদ বরাদ্দ করাই এখন সময়ের দাবি।

তারা আরও বলেন, সম্প্রতি প্রকাশিত বাংলাদেশ ন্যাশনাল হেলথ অ্যাকাউন্টসের ষষ্ঠ প্রতিবেদনে দেখা গেছে, মোট স্বাস্থ্য ব্যয়ের ৬৮ শতাংশ আসছে নাগরিকদের পকেট থেকে, আর সরকারের কাছ থেকে আসছে ২৩ শতাংশ। প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা বাবদ ব্যয় বাড়ানো গেলে নাগরিকদের ওপর স্বাস্থ্য ব্যয়ের চাপ উল্লেখযোগ্য মাত্রায় কমানো সম্ভব বলে মনে করেন আলোচকরা।

আলোচনায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান বলেন, নানা প্রতিবন্ধকতা থাকার পরও অল্প সময়ের মধ্যে দেশের ৮০ শতাংশ মানুষের জন্য করোনা টিকা নিশ্চিত করার মাধ্যমে সব স্তরের মানুষের জন্য মানসম্মত স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে সরকারের সদিচ্ছা প্রতিফলিত হয়েছে। এই দক্ষতা পুরো স্বাস্থ্য খাতের অন্যান্য কার্যক্রমে বজায় রাখা সম্ভব হলে দেশের মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ বিষয়ক সংসদীয় কমিটির সদস্য মো. আব্দুল আজিজ, ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত, ডা. সামিল উদ্দিন আহম্মেদ শিমুল, ডা. হাবিবে মিল্লাত, ডা. আ. ফ. ম. রুহুল হক, মো. আব্দুল আজিজ আলোচনায় অংশ নেন।

(ওএস/এএস/মে ১৩, ২০২২)

পাঠকের মতামত:

২৪ মে ২০২২

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test