E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Walton New
Mobile Version

সংক্রমণে ঊর্ধ্বগতি, ভারতের তিন রাজ্যে ফিরলো করোনাবিধি

২০২৩ এপ্রিল ০৯ ১২:৪৫:১১
সংক্রমণে ঊর্ধ্বগতি, ভারতের তিন রাজ্যে ফিরলো করোনাবিধি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :





ভারতে আবারও হু হু করে বাড়ছে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। গত কয়েকদিনে দেশটির বিভিন্ন রাজ্যে রেকর্ড সংক্রমণ লক্ষ্য করা গেছে। আর তার জেরে আবারও ফিরিয়ে আনা হয়েছে করোনাবিধি। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে অন্তত তিনটি রাজ্যে মাস্কের ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। অন্য রাজ্যগুলোও জনসাধারণকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছে। খবর এনডিটিভির।

করোনা পরিস্থিতি নিয়ে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মান্ডাভিয়া এ সপ্তাহের শুরুতে জরুরি পর্যালোচনা সভা করেছেন। এসময় রাজ্যগুলোকে সতর্ক থাকতে এবং স্বাস্থ্য সুবিধাগুলোর প্রস্তুতি পর্যালোচনার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আশ্বাস দিয়েছেন, সংক্রমণের সাম্প্রতিক ঊর্ধ্বগতি মোকাবিলায় ভারত সরকার প্রস্তুত। তবে করোনা মহামারির সম্ভাব্য চতুর্থ ঢেউ সম্পর্কে সতর্ক হওয়া দরকার বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

হরিয়ানা
করোনার সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে উন্মুক্ত স্থানে মুখে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করেছে হরিয়ানা সরকার। জনসাধারণকে যথাযথ করোনাবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছে রাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগ। হরিয়ানার সব অংশে নিয়মগুলো সঠিকভাবে প্রয়োগের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে জেলা প্রশাসন ও পঞ্চায়েতগুলোকে।

কেরালা
অন্তঃসত্ত্বা নারী, বয়স্ক ও জটিল রোগে আক্রান্তদের জন্য মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করেছে কেরালা প্রশাসন।

করোনা পরিস্থিতি মূল্যায়নে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকের পরে রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী বীনা জর্জ বলেছেন, করোনায় সাম্প্রতিক মৃতদের বেশিরভাগই ৬০ বছরের বেশি বয়সী এবং ডায়াবেটিসের মতো রোগে আক্রান্ত ছিলেন।

তিনি স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগকে অক্সিজেনের প্রাপ্যতা নিশ্চিত করার নির্দেশ দিয়েছেন এবং বলেছেন, শিগগির বেসরকারি হাসপাতালগুলোর জন্য বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত হবে।

পুদুচেরি
সব উন্মুক্ত স্থানে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক ঘোষণা করেছে পুদুচেরি। তাৎক্ষণিকভাবে কার্যকর হয়েছে এই নিয়ম। এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, হাসপাতাল, হোটেল, রেস্তোরাঁ, মদের দোকান, আতিথেয়তা ও বিনোদন খাত, সরকারি অফিস এবং বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক পরতে হবে।

উত্তর প্রদেশ
করোনার বিষয়ে একটি ‘উচ্চ-অগ্রাধিকার’ নির্দেশিকা জারি করেছে উত্তর প্রদেশ সরকার। এতে রাজ্যের সব বিমানবন্দরে আন্তর্জাতিক যাত্রীদের স্ক্রিনিং নিশ্চিত করতে নির্দেশ দিয়েছে। সরকারি আদেশে বলা হয়েছে, করোনা পজিটিভ শনাক্ত হওয়া সব নমুনা জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ের জন্য পাঠাতে হবে।

দিল্লি
দিল্লির হাসপাতাল, পলিক্লিনিক এবং ডিসপেনসারিগুলোকে করোনা পরীক্ষা বাড়ানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। চিকিৎসা বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ভারতের রাজধানীতে সংক্রমণ বৃদ্ধির কারণ হতে পারে করোনাভাইরাসের নতুন এক্সবিবি.১.১৬ ধরন। তবে এর জন্য আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। জনসাধারণকে যথাযথ করোনাবিধি মেনে চলা এবং ভ্যাকসিনের বুস্টার ডোজ নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তারা।

(ওএস/এএস/এপ্রিল ০৯, ২০২৩)

পাঠকের মতামত:

২০ জুলাই ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test